মোবাইল অ্যাপস

ছবি সুন্দর করার সফটওয়্যার ডাউনলোড করুন।

প্রিয় পাঠক, আপনার হাতের মোবাইল ফোনটি হয়তো অনেক দামি, ফোনটির ক্যামেরাও হয়তো অনেক ভালো। কিন্তু আপনি যখন আপনার ফোনটি দিয়ে কোনো ছবি তুলতে যান তখন হয়তো আপনার প্রত্যাশা অনুযায়ী খুব বেশি ভালো ছবি আসে না।

অন্য দিকে আপনার বন্ধু হয়তো খুবই কমদামি একটি মোবাইল ফোন ব্যবহার করে। অথচ ফেসবুকে তার আপলোড করা ছবিগুলো আপনার ফোন থেকে তুলা ছবিগুলোর তুলনায় অনেক সুন্দর হয়।

যার ফলে তার ছবিতে প্রচুর রিয়াক্ট, কমেন্টস আসে। এটা কেন হয়? কারণ, সে তার ফোন দিয়ে ছবি তুলার পর ফেসবুকে আপলোড দেওয়ার পূর্বে সেই ছবিগুলো এডিট করে নেয়।

আমরাও আমাদের ফোন থেকে তুলা ছবিগুলো এডিট করে আরও সুন্দর করে নিতে পারি। অনেকেই আবার দুই ছবি একসাথে করার সফটওয়্যার ডাউনলোড করতে চান।

তবে এর জন্যেও প্রয়োজন পড়বে একটি ভালো ফটো এডিটর অ্যাপস। আজকের এই পোস্টে আমরা সেরা ৫ টি মোবাইল দিয়ে ছবি এডিট করার সফটওয়্যার ডাউনলোড লিংক সহ বিস্তারিত ভাবে জেনে নিব।

যেগুলো দিয়ে প্রায় প্রফেশনাল মানের ফটো এডিট করা সম্ভব। আমি যে পাঁচটি অ্যাপসের কথা বলবো সেগুলোর মধ্য থেকে আপনি আপনার পছন্দ অনুযায়ী যেকোনো একটি ফটো এডিটিং অ্যাপ ডাউনলোড করে ব্যবহার করবেন। তবে তার আগে অবশ্যই পুরো পোস্টটি পড়ে প্রতিটি অ্যাপ সম্পর্কে ভালো ভাবে জেনে নিবেন।

সেরা পাঁচটি ছবি এডিট করার সফটওয়্যার ডাউনলোড।

ছবি সুন্দর করার উপায় বা ছবি এডিট করার নিয়ম জানতে নিচে দেওয়া অ্যাপগুলোর মধ্য থেকে আপনার পছন্দের অ্যাপটি ডাউনলোড করে নিন।

কারণ এই অ্যাপগুলো দিয়েই আপনি আপনার পছন্দ অনুযায়ী ছবি এডিট করতে পারবেন। মোবাইলে ফটো এডিট করার ভালো এপ্স কোনটি তা জানতে অবশ্যই প্রতিটি অ্যাপ নিয়ে যে বিস্তারিত লেখা আছে তা পড়ে নিবেন।

০১. PhotoRoom (ছবি এডিটিং সফটওয়্যার ডাউনলোড)

PhotoRoom ফটো এডিটিং অ্যাপ।

পিকচার এডিট করার অ্যাপস এর তালিকার মধ্যে সবার প্রথমে যে অ্যাপটি রেখেছি সেটির নাম হচ্ছে PhotoRoom Studio Photo Editor। অ্যাপটির মূল কাজটি হলো ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ করা।

আমরা অনেকেই চাই আমাদের ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড পরিবর্তন করে নতুন আরেকটি সুন্দর ব্যাকগ্রাউন্ড বসাতে। অথবা, আমাদের ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড কিছুটা ব্লার (Blur) করে ফেলতে চাই। DSLR দিয়ে ছবি তুলতে যেমনটা হয় আরকি।

ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ কিংবা পরিবর্তন করতে এবং ব্যাকগ্রাউন্ড ব্লার করতে ফটোরুম অ্যাপ্লিকেশনটি ডাউনলোড করে ব্যবহার করতে পারেন।

এছাড়াও যেমন ধরুন, আপনি আপনার ইউটিউব চ্যানেলের ভিডিওর জন্য থাম্বনেইল তৈরি করতে চান, তাহলে এই অ্যাপ্লিকেশনটি দিয়ে খুব সহজেই তা করা সম্ভব।

পাশাপাশি আপনার যদি কোনো অনলাইন বিজনেস থাকে অথবা আপনি যদি প্রডাক্ট ফটোগ্রাফি নিয়ে কাজ করেন তাহলেও এই অ্যাপটি বেশ ভালো কাজে দিবে।

এই অ্যাপটি দিয়ে এডিট করলে ছবির কোয়ালিটিও ঠিক থাকে। ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ বা পরিবর্তন ছাড়াও আরও বেশ কিছু অতিরিক্ত অপশন পেয়ে যাবেন এই অ্যাপটিতে।

PhotoRoom Studio Photo Editor অ্যাপ্লিকেশনটি গুগল প্লে স্টোর থেকে ডাউনলোড করতে চাইলে নিচের বাটনে ক্লিক করুন।

ফটো এডিটিং অ্যাপস

০২. Adobe Lightroom (ছবি কালার করার অ্যাপস ডাউনলোড)

adobe lightroom ফটো এডিটিং অ্যাপস

Adobe Lightroom হচ্ছে বেশ জনপ্রিয় একটি পিকচার এডিট করার সফটওয়্যার। অনেকেই হয়তো অ্যাপটির নাম শুনে থাকবেন। ছবি কালার করার অ্যাপসগুলোর মধ্যে Adobe Lightroom অন্যতম।

সবচেয়ে বড় ব্যাপার হলো এই অ্যাপটাও ছবির কোয়ালিটি ঠিক ঠাক ধরে রাখতে পারে। লাইটরুম অ্যাপের মূল কাজই হলো ছবির কালার কারেকশন করা।

আমরা যখন আমাদের ফোন দিয়ে কোনো ছবি তুলি তখন আশানুরূপ কালার পাই না। ছবির কালার ঠিক করার জন্য আপনি লাইট রুম অ্যাপটি ব্যবহার করতে পারেন। অ্যাপটি দিয়ে খুব সহজেই ছবির কালার পরিবর্তন করতে পারবেন।

Adobe Lightroom : Photo Editor অ্যাপ্লিকেশনটি প্লে স্টোর থেকে ডাউনলোড করতে নিচের বাটনে ক্লিক করুন।

ফটো এডিটিং অ্যাপস

০৩. PicsArt (ফটো এডিট করার অ্যাপস ডাউনলোড)

picsart ফটো এডিটিং অ্যাপস

ফটো এডিট করার অ্যাপস এর তালিকায় ৩য় নাম্বারে যে অ্যাপটি রেখেছি সেটির নাম হচ্ছে PicsArt। আমি আমার নিজের ছবি এডিট করতে এবং প্রযুক্তি প্রিয় ডট কম ওয়েবসাইটের থাম্বনেইল তৈরি করতে এই অ্যাপটিই ব্যবহার করে থাকি।

মোবাইলে ছবি এডিটিং এর জন্য PicsArt খুবই জনপ্রিয় একটি অ্যাপ। আপনি নিশ্চয়ই এটির নাম শুনে থাকবেন। প্রফেশনাল মানের ফটো এডিট এর জন্য PicsArt-এ প্রায় সবকিছুই পেয়ে যাবেন।

অ্যাপটিতে ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ, ব্যাকগ্রাউন্ড পরিবর্তন, কালার কারেকশন, মালটি লেয়ার ব্যবহার, ড্রয়িং, আনলিমিটেড স্টিকার, ছবি ও লেখা যুক্ত করা, কাস্টম ফন্ট, ব্লার, ইফেক্ট সহ প্রয়োজনীয় আরো অনেক সুবিধা পেয়ে যাবেন।

যার সবগুলো বলতে গেলে অনেক সময় লেগে যাবে। মূল কথা, এই একটি অ্যাপ দিয়েই আপনি প্রায় সবই করতে পারবেন। অ্যাপটি যত ব্যবহার করবেন আপনি ততোই আরো নতুন কিছু শিখতে পারবেন।

PicsArt অ্যাপের আরও একটি বিশেষ সুবিধা হচ্ছে এই অ্যাপটি দিয়ে ছবি এডিট করার পাশাপাশি ভিডিও এডিট করতেও পারবেন।

PicsArt Photo Editor & Video Editor অ্যাপ্লিকেশনটি প্লে স্টোর থেকে ডাউনলোড করতে নিচের বাটনে ক্লিক করুন।

ফটো এডিটিং অ্যাপস

০৪. Toolwiz Photos (ছবি সুন্দর করার সফটওয়্যার ডাউনলোডই)

Toolwiz ফটো এডিটিং অ্যাপস

পরবর্তী অ্যাপটির নাম Toolwiz Photos – Pro Editor। Toolwiz Photos অ্যাপটি অনেকটা PicsArt অ্যাপের মতোই। যারা মোবাইল দিয়ে প্রফেশনাল মানের ফটো এডিট করতে চান তারা এই অ্যাপটি ব্যবহার করে দেখতে পারেন।

এই অ্যাপ দিয়ে ছবি এডিট করলে ছবির কোয়ালিটিও ভালো থাকে। Toolwiz Photos অ্যাপের ইন্টারফেস প্রথম প্রথম আপনার কাছে কিছুটা কঠিন লাগতে পারে। তবে ব্যবহার করতে করতেই তা সহজ হয়ে যাবে।

Toolwiz Photos – Pro Editor অ্যাপ্লিকেশনটি প্লে স্টোর থেকে ডাউনলোড করতে নিচের বাটনে ক্লিক করুন।

ফটো এডিটিং অ্যাপস

০৫. PixelLab (ছবি এডিটিং সফটওয়্যার ডাউনলোড)

Pixellab ফটো এডিটিং অ্যাপস

ছবি সুন্দর করার সফটওয়্যারগুলোর মধ্যে সর্বশেষ যেটির সাথে পরিচয় করিয়ে দিব সেটির নাম হচ্ছে PixelLab – Text On Pictures। PicsArt এর পরেই এই সফটওয়্যারটি আমার অনেক পছন্দের।

যারা কিনা থাম্বনেইল তৈরি করতে চান তাদের জন্য সেরা একটি সফটওয়্যার এটি। PixelLab অ্যাপ দিয়ে আপনি কোনো ছবিতে খুবই সুন্দর করে কিছু লিখতে পারবেন।

কারণ এটিতে ডিফল্ট ভাবেই চমৎকার সব ফন্ট দেওয়া থাকে। আপনি চাইলে কাস্টম ফন্টও যুক্ত করে নিতে পারেন। থাম্বনেইল ছাড়াও যারা লগো, ব্যানার তৈরি করতে চান তারা এই অ্যাপটি ব্যবহার করতে পারেন।

PixelLab অ্যাপ দিয়ে মূলত ছবিতে স্টাইলিশ ভাবে টেক্সট এড করার যেসব সুবিধা পাবেন অন্য সব অ্যাপসে সেসব সুবিধা খুব বেশি পাবেন না।

অ্যাপটিতে আপনি আপনার প্রয়োজন অনুযায়ী মালটি লেয়ার ব্যবহার করতে পারবেন। এছাড়াও একটা ছবি এডিট যেসব সেটিংস প্রয়োজন তার প্রায় সবই আপনি PixelLab এ পেয়ে যাবেন।

PixelLab – Text On Pictures অ্যাপ্লিকেশনটি প্লে স্টোর থেকে ডাউনলোড করতে চাইলে নিচের বাটনে ক্লিক করুন।

ফটো এডিটিং অ্যাপস
উপরোক্ত অ্যাপগুলোর মধ্যে আপনার পছন্দের অ্যাপ কোনটা অবশ্যই তা কমেন্ট করে জানাতে ভুলবেন না। ধন্যবাদ।

Mohammad Robin

আমি মুহাম্মদ রবিন, একজন সৌদি আরব প্রবাসী। আমার বাসা টাংগাইলের কালিহাতীতে। প্রযুক্তি বিষয়ক বিভিন্ন তথ্য নিজে জানার জন্য এবং আপনাদের জানানোর উদ্দেশ্যে এই ওয়েবসাইটটি তৈরি করেছি।

এ সম্পর্কিত আরো পোস্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
error: Content is protected !!