ব্লগিং টিপস

ওয়েবসাইটের জন্য ডোমেইন নাম নির্বাচন করবেন যেভাবে।

ডোমেইন নাম কী?

ডোমেইন নাম হলো আপনার অনলাইন ঠিকানা বা পরিচয়। ডোমেইন নাম আপনার সাথে আপনার Audience বা ভিজিটরদের যোগাযোগ এর যোগসূত্র হিসেবে কাজ করে। ডোমেইন নামগুলো ইউনিক হয়।

যেমন, আমাদের ওয়েবসাইটের নাম প্রযুক্তি প্রিয় ডট কম (www.projuktipriyo.com)। এই নামে আপনি ২য় কোনো ওয়েবসাইট খুঁজে পাবেন না। ডোমেইন নামগুলো বিভিন্ন এক্সটেনশনের হয়ে থাকে। যেমন, .com .net .mobi .org .club .info .edu .biz ইত্যাদি।

ভালো ডোমেইন নেইমের গুরুত্ব?

নিউজ কিংবা ব্যক্তিগত ব্লগ ওয়েবসাইট বানাতে চাচ্ছেন? নিউজ কিংবা ব্লগের বিষয় নির্বাচন করার পরবর্তী কাজই হচ্ছে ওয়েবসাইটের সুন্দর নাম নির্বাচন করা (ব্লগের নাম নির্বাচন / ব্লগ সাইটের নাম)।

ডোমেইন নাম নির্বাচন করা যতটা সহজ মনে হয় আসলে ততটা সহজ কিন্তু নয়। আপনার ওয়েবসাইটটি হোক ব্যবসায়িক কিংবা ব্যক্তিগত, নাম রাখার ক্ষেত্রে ঠিক ততটাই গুরুত্ব দেওয়া উচিৎ যেমন আমরা আমাদের পরিবারে সদ্য জন্ম নেওয়া শিশুর নাম রাখতে গুরুত্ব দেই।

কারণ আজকে হয়তো শখের বসে একটি ওয়েবসাইট খুলতে চাচ্ছেন অদূর ভবিষ্যতে যে এই ওয়েবসাইটটি জনপ্রিয়তা পাবেনা এর কী গ্যারান্টি? এমনকি আপনার শখের বসে খুলতে যাওয়া ওয়েবসাইটটি একসময় আপনার আয়ের প্রধান উৎসও হতে পারে!

ডোমেইন নাম বাছাই
ডোমেইন নাম বাছাই।

একটি ডোমেইন নাম নির্ধারণ ব্যবসার নাম নির্ধারণ করার মতোই গুরুত্বপূর্ণ। ব্যবসায়িক কিংবা ব্যক্তিগত ওয়েবসাইট, ডোমেইন নেইম বাছাই করতে সব সময় প্রফেশনাল ভাবে চিন্তা ভাবনা করবেন।

চিন্তা করবেন আপনি যে নামে ডোমেইন ক্রয় করতে যাচ্ছেন ভবিষ্যতে তা একটি ব্র‍্যান্ড হতে চলেছে। তাই আপনার ওয়েবসাইটের জন্য এমন ডোমেইন নাম বাছাই করবেন যাতে পরবর্তীতে আর কোনো সমস্যায় না পরতে হয়।

আপনার নতুন ওয়েবসাইটের জন্য ডোমেইন নাম নির্বাচন করবেন কীভাবে?

০১. নিশ/সার্ভিস অনুযায়ী নাম।

আপনার ওয়েবসাইটের ডোমেইন নামটি যেন অবশ্যই আপনার নিশ, কন্টেন্ট এবং সার্ভিস সম্পর্কিত হয়। যাতে উক্ত ওয়েবসাইটের নাম শুনেই সবাই বুঝতে পারে যে, ওয়েবসাইটটি কিসের।

এবং তারা উক্ত ওয়েবসাইট থেকে কী কী পণ্য বা সেবা পেতে পারে তার ধারণাও পেতে পারে। যেমন: আমাদের প্রযুক্তি প্রিয় ডট কম ডোমেইন নাম শুনেই বুঝা যায় যে এই ওয়েবসাইটটি প্রযুক্তি বিষয়ক ওয়েবসাইট।

০২.ছোট নাম বাছাই।

আপনার ওয়েবসাইটের ডোমেইন নাম ছোট রাখার চেষ্টা করুন। অবশ্যই ১২ অক্ষরের মধ্যে রাখার চেষ্টা করুন। কারণ ডোমেইন নাম যত ছোট হবে মনে রাখা ঠিক ততই সহজ হবে। ছোট নাম উক্ত ওয়েবসাইটের পরিচিতি বাড়াতে সাহায্য করবে।

০৩. সহজ ও অর্থবহ নাম।

ডোমেইন নাম অবশ্যই সহজ শব্দে রাখবেন। পাশাপাশি তার বানানও যেন সহজ হয় তা খেয়াল রাখতে হবে। শব্দের অর্থ ইতিবাচক রাখতে হবে।

ইংরেজি ডোমেইন নাম খুঁজে না পেলে বাংলা ডোমেইন নামও রাখতে পারেন। আর আপনার টার্গেট যদি হয় বাংলা ভাষাভাষী তাহলে তো বাংলাতে নাম রাখাই বুদ্ধিমানের কাজ।

০৪. মনে রাখা সহজ এমন নাম।

মনে রাখা সহজ এমন নাম বাছাই করুন। যে ওয়েবসাইটের ডোমেইন নাম লোক মুখে খুব সহজেই আসবে সে ওয়েবসাইট খুব তারাতাড়িই পরিচিতি পাবে। এতে আপনি ব্যবসায় আরো বেশি লাভ করতে পারবেন।

০৫. আকর্ষণীয় নাম।

ওয়েবসাইটের ডোমেইন নেম এমন রাখা উচিৎ যাতে উক্ত নাম শুনেই মানুষ জনের মনে কৌতুহল সৃষ্টি হয়, আর তারা সাইটটিতে ভিজিট করতে আগ্রহ প্রকাশ করে।

০৬. কাষ্টমারদের টার্গেট করুন।

আপনার ব্যবসার ক্ষেত্র যদি নির্দিষ্ট এলাকা বা শহরের মানুষদের টার্গেট করে হয় তাহলে ডোমেইন নামে ওই এলাকা বা শহরের নাম যুক্ত করে নেওয়া বুদ্ধিমানের কাজ।

এতে লোকাল মানুষের জন্য তা খুঁজে বের করা এবং মনে রাখা অনেক সহজ হয়। আর ঐ এলাকা বা শহরের মানুষ জন যখন ডোমেইন নামে উক্ত এলাকার নাম যুক্ত দেখতে পাবে তখন সেটি ভিজিট করতে আগ্রহী হবে।

আর আপনার সাইটের ভিজিটর যদি হয় বাংলাদেশী মানুষ তাহলে ডোমেন নামের সাথে bd শব্দ যুক্ত করতে পারেন এবং ইউনিক বাংলা নাম বাছাই করতে পারেন।

০৭. সংখ্যা ও হাইফেন ব্যবহার করবেন না।

মানুষ কিছু লেখার সময় স্বাভাবিক ভাবে প্রায়ই ভুল করে থাকে। কিছুটা সতর্কতা অবলম্বণের মাধ্যমে আপনার সাইটের নাম ভুল টাইপিং থেকে ভিজিটরদের বিরত রাখতে পারেন।

ডোমেইন নামে কোনো প্রকার সংখ্যা, হাইফেন কিংবা অন্য কোনো চিহ্ন ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকুন। কারণ এসব ব্যবহারে মানুষজন সংশয়ে থাকবে।

তাছাড়া শব্দ ও নম্বর মিশ্রিত ভাবে ব্যবহার করলে তা লিখতে মোবাইল কিবোর্ড বার বার সুইচ/পরিবর্তন করতে হয়। যা ভিজিটরদের জন্য বিরক্তিকর হতে পারে।

০৮. জনপ্রিয় ওয়েবসাইটের নাম নকল করবেন না।

ভালো ভালো কিছু ব্লগ ও ফোরাম ওয়েবসাইটের নাম কিংবা জনপ্রিয় বাংলা ব্লগের নাম থেকে ধারণা নিয়ে আপনার ওয়েবসাইটের জন্য নাম বাছাই করতে পারেন। বিভিন্ন ওয়েবসাইটের নাম থেকে শুধু মাত্র ধারণা নিয়ে কিছু ওয়েবসাইটের নাম বাছাই করুন তবে ভুলেও ঐসকল নাম নকল করতে যাবেন না। নকল নাম নিয়ে কখনো এগিয়ে যেতে পারবেন না।

০৯. নিজের নাম ব্যবহার এড়িয়ে চলুন।

আপনার ওয়েবসাইটের ডোমেইন নেইম এ কখনো নিজের নাম ব্যবহার করতে যাবেন না। এমনকি আপনার ঐ সাইটটা যদি শখের বসে খোলাও হয়!

এর কারণ হচ্ছে আপনি যদি আপনার ব্লগ সাইটের ডোমেইন নামের সাথে নিজের নাম যুক্ত করেন তাহলে পরবর্তীতে যদি উক্ত ওয়েবসাইট বিক্রি করতে চান কিংবা অন্য কারো সাথে পার্টনারশিপে কাজ করতে চান তাহলে তখন সমস্যায় পরবেন। তাই এসব বিষয় আগে থেকেই ভেবে নেওয়া ভালো।

১০. ডোমেইন নেইম জেনারেটর টুলস ব্যবহার করুন।

অনুমান করে ডোমেইন নাম বাছাই করা সম্ভব না হলে সম্ভাব্য নামের তালিকা সহজেই খুঁজে পেতে ডোমেইন নেম জেনারেটর টুলস ব্যবহার করতে পারেন।

ডোমেইন নাম খোজে পেতে এমন বিভিন্ন ফ্রি অনলাইন টুলস রয়েছে। যার ব্যবহারে আপনার নতুন ওয়েবসাইটটির জন্য নামের ধারণা পেতে পারেন। এরকম কিছু অনলাইন টুলস হলো:-
ক. Instant Domain Search
খ. Domain Wheel
গ. Name Station

১১. তালিকা করা নামগুলো যাচাই করুন।

উপরের নির্দেশনাগুলো মেনে ২০-৩০ টি নাম খাতায় কিংবা নোট বুকে লিখে রাখুন। এর কারণ হচ্ছে আমরা জানি ডোমেইন নাম সব সময় ইউনিক হয়।

তাই যেসকল ডোমেইন নেইম আগেই কেউ কিনে রেখেছে ঐসব ডোমেইন নেইম আপনি আর কিনতে পারবেন না। যেমন: আমাদের প্রযুক্তি প্রিয় ডট কম ডোমেইনটিও যেহেতু আমরা কিনে নিয়েছে তাই অন্য কেউ আর কিনতে পারবেনা।

আপনার তালিকা করা নামগুলো একটি একটি করে ইউনিক কিনা তা যাচাই করতে হবে। যাচাই করার জন্য আপনি যেকোনো ডোমেইন কেনার ওয়েবসাইট ব্যবহার করতে পারেন।

ঐসব সাইটে গিয়ে সার্চ বারে আপনার ডোমেইন নামটি লিখে সার্চ করলেই পূর্ব থেকে কেউ তা কিনে রেখেছে কিনা জানতে পারবেন। এমন কিছু সাইটের নাম হলো: dainahost.com, godaddy.com, namechep.com

এরপর আপনার বাছাই করা ইউনিক নামের তালিকা থেকে পছন্দের ডোমেইন নামটি খুব দ্রুত কিনে ফেলুন। কেনার সময় অবশ্যই খেয়াল রাখবেন আপনি যে ওয়েবসাইট বা কোম্পানি থেকে আপনার ডোমেইন এক্সটেনশনটি কিনতে চাচ্ছেন তা কতখানি বিশ্বস্ত।

Mohammad Robin

আমি মুহাম্মদ রবিন, একজন সৌদি আরব প্রবাসী। আমার বাসা টাংগাইলের কালিহাতীতে। প্রযুক্তি বিষয়ক বিভিন্ন তথ্য নিজে জানার জন্য এবং আপনাদের জানানোর উদ্দেশ্যে এই ওয়েবসাইটটি তৈরি করেছি।

এ সম্পর্কিত আরো পোস্ট

Back to top button
error: Content is protected !!