এক্স

এক্স অ্যাকাউন্ট তৈরি ও ব্যবহার করার নিয়ম।

কিভাবে এক্স ব্যবহার করতে হয়?

ফেসবুক, ইউটিউব, টিকটক এবং ইনস্টাগ্রামে আপনার অবশ্যই একটি অ্যাকাউন্ট রয়েছে। আর আপনি হয়তো নিয়মিত এসব সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারও করেন।

কিন্তু আপনার কি এক্সে কোনো অ্যাকাউন্ট রয়েছে? আর অ্যাকাউন্ট থাকলেও হয়তো খুব একটা বুঝেন না।

কারণ বাংলাদেশের সাধারণ ইন্টারনেট ব্যবহারকারীরা এক্স খুব একটা ব্যবহার করে না।

এক্স মূলত বেশিরভাগ অভিনেতা-অভিনেত্রী, রাজনীতিবীধ, খেলোয়াড়, সমাজকর্মী এবং জনপ্রিয় সব ব্যক্তিবর্গ মানুষেরা ব্যবহার করে এবং তাদের মনের ভাব প্রকাশ করে। এক্স (পূর্বের নাম টুইটার) ২০০৬ সালে চালু হয়।

এটি একটি মাইক্রোব্লগিং সোশ্যাল মিডিয়া ওয়েবসাইট, যেখানে ব্যবহারকারীরা অন্যদের সাথে শেয়ার করার জন্য পোস্ট (Post) নামে পরিচিত শর্ট-ফর্ম কন্টেন্ট তৈরি করে। বাইরের দেশে এক্স খুবই জনপ্রিয় একটি সোশ্যাল মিডিয়া।

আজকে আমরা এক্স ব্যবহার সম্পর্কে জানব এবং শিখে নিব কীভাবে এক্স অ্যাকাউন্ট খুলতে হয়।

আপনি হয়তো এক্সের পোস্ট, রিপোস্ট, হ্যাশট্যাগ ইত্যাদি নাম শুনে থাকবেন। এগুলো শুনতে কঠিন মনে হলেও কঠিন কিছু নয়।

এক্স অ্যাকাউন্ট খুলাও খুবই সহজ। যেকেউ চাইলে X অ্যাপ ব্যবহার করে অথবা www.x.com ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে বিনামূল্যে একটি অ্যাকাউন্ট তৈরি করে ফেলতে পারে।

আপনি আপনার ফোন নাম্বার অথবা ই-মেইল ঠিকানা ব্যবহার করেই একটি এক্স অ্যাকাউন্ট খুলে ফেলতে পারেন।

একটি এক্স অ্যাকাউন্ট সঠিক ভাবে ব্যবহার করতে যেসব বিষয় জানা জরুরি আজকের এই আর্টিকেল থেকে আমরা তা জানবো।

চলুন এক্সের সাথে জরিত এমন কিছু ফিচার সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক। যেগুলো জানা থাকলে এক্স ব্যবহার করা সহজ হয়ে উঠবে।

এক্সের ফিচারসমূহ: | এক্স এর কাজ কি?

● পোস্ট (Post): সহজ করে বলতে গেলে পোস্ট হচ্ছে অনেকটা ফেসবুকে করা পোস্টের মতোই।

এক্সে যাদের অ্যাকাউন্ট আছে তারা তাদের নিজস্ব পোস্ট করতে এবং অন্যদের সাথে যোগাযোগ করতে পারে। এক্সের পোস্টগুলো হতে পারে কোনো ছবি, ভিডিও কিংবা লেখা।

আপনি যদি জানতে চান এসব পোস্ট করে কী হয়? এই উত্তর হচ্ছে, পোস্ট করে মূলত এর ব্যবহারকারীরা তাদের মনের ভাব, বিচার-বিবেচনা, অভিজ্ঞতা, জ্ঞান সহ ইত্যাদি বিষয় অন্যান্য ব্যবহারকারীদের নিকট শেয়ার করে। তাদের এসব পোস্ট থেকে নতুন নতুন বিষয় জানা যায়।

● রিপোস্ট (Repost): এক্সের পোস্ট বা Post শেয়ার করাকে রিপোস্ট বলে।

যদি কেউ আপনার পছন্দের কিছু পোস্ট করে, আপনি পোস্টটি আপনার নিজের এক্স ফিডে শেয়ার করতে রিপোস্ট বাটনে ক্লিক করবেন।

আপনি যখন কোনো পোস্ট রিপোস্ট বা শেয়ার করবেন তখন তা আপনার ফলোয়ারদের কাছে দৃশ্যমান হবে এবং আপনার এক্স প্রোফাইলেও প্রদর্শিত হয়।

● কোট পোস্ট (Quote Post): রিপোস্টের সাথে যদি কোনো কমেন্ট যুক্ত করতে চান, তাহলে পোস্টকে কোট করে পোস্ট করা বলে।

● ইউজার নেইম (Username): আপনি যখন এক্সে একটি অ্যাকাউন্ট খুলবেন তখন আপনাকে একটি ইউনিক নাম দিতে হবে সেটাকে বলা হয় এক্স ইউজার নেইম।

আপনি সেই ইউজার নেইম এবং আপনার অ্যাকাউন্টের পাসওয়ার্ড দিয়ে এক্সে লগিন করতে পারবেন। এক্স সেটিং থেকে পরবর্তীতে ইউজার নেইম পরিবর্তন করে নেওয়া যায়।

●ফলো (Follow): এক্সে একজন ব্যবহারকারী অন্য আরও ব্যবহারকারীকে Follow করে রাখতে পারে, যাতে তাদের করা পোস্টগুলো খুব সহজেই দেখতে পারা যায়। আপনি অন্যান্য এক্স প্রফাইলে গেলে একটি Follow অপশন দেখতে পাবেন।

যেখানে ক্লিক করলেন মানে আপনি তাদের ফলোয়ার হয়ে যাবেন। এরপর থেকে তাদের করা পোস্টগুলো আপনি খুব সহজেই পেয়ে যাবেন।

একই ভাবে অন্যরাও আপনাকে ফলো করতে পারবে। যেমনটি আমরা টিকটক, ইনস্টাগ্রামে করে থাকি।

● হ্যাশট্যাগ (Hashtag): যেকোনো শব্দের আগে হ্যাশ (#) চিন্হ যুক্ত হলে সেটিকে হ্যাশট্যাগ বলা হয়। এক্সে পোস্ট করার সময় #হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করা হয়।

যেমন: #ProjuktiPriyo #HashTag #Bangladesh ইত্যাদি। আপনি যখন হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করবেন সেটা গ্রুপের মতো কাজ করবে। বিশেষ বিশেষ ক্ষেত্রে এই হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করা হয়।

●মেনশন (Mention): অন্য এক্স অ্যাকাউন্টের ইউজার নেইম দ্বারা ট্যাগ করে কোথাও পোস্ট করাকে বলা হচ্ছে মেনশন।

মেনশন করলে মেনশন যাকে করা হয়েছে তিনি উক্ত টুইটের নোটিফিকেশন পাবেন।

● ম্যাসেজ (Message): এক্সে একজন ব্যবহারকারী অন্য আরেকজন ব্যবহারকারীকে বার্তা পাঠানোর জন্য ডিরেক্ট ম্যাসেজ অপশনটি ব্যবহার করা হয়।

●লাইক (Like): ফেসবুক পোস্টের মতো এক্সের পোস্টেও লাইক বোতাম রয়েছে।

এক্স একাউন্ট খোলার নিয়ম। | কীভাবে এক্স অ্যাকাউন্ট খুলতে হয়?

এক্সে একটি অ্যাকাউন্ট তৈরি করা অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া সাইটে অ্যাকাউন্ট করার মতোই সহজ।

এক্স অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে আপনার ফোনে X অ্যাপ্লিকেশনটি ডাউনলোড করে ওপেন করুন। অথবা যেকোনো ব্রাউজার থেকে www.x.com ওয়েবসাইটে যান।

আপনি চাইলে আপনার জিমেইল আইডি অথবা অ্যাপল আইডি দিয়েও লগিন করতে পারবেন।

০১. Create Account-এ ক্লিক করুন।

অন্যথায় সাইটের ‘Create Account’ অপশনে ক্লিক করুন।

টুইটার একাউন্ট ব্যবহার করার নিয়ম

০২. প্রয়োজনীয় তথ্য দিন।

এরপর আপনি দেখতে পাবেন আপনাকে কিছু তথ্য পূরণ করতে বলা হচ্ছে। যেমন: আপনার নাম, ফোন নাম্বার অথবা ইমেল ঠিকানা এবং আপনার জন্ম তারিখ।

টুইটার একাউন্ট ব্যবহার করার নিয়ম

এসব তথ্য দিয়ে নিচের Next লেখা বাটনে ক্লিক করুন।

০৩. Next করে দিন।

পরের পেইজেও Next বাটনে ক্লিক করুন।

০৪. Sign Up-এ ক্লিক করুন।

এরপর আপনার দেওয়া তথ্যগুলো দেখতে পাবেন। এবং নিচে Sign up লেখা একটি বাটন দেখতে পাবেন তাতে ক্লিক করুন।

০৫. ফোন নাম্বার/ইমেইল ভেরিফাই করুন।

টুইটার একাউন্ট ব্যবহার করার নিয়ম

Sign Up বাটনে ক্লিক করলে আপনার কাছে একটি পিন কোড চাওয়া হবে। আপনার ফোন নাম্বার / ইমেইল ঠিকানায় আসা পিন কোডটি এখানে বসিয়ে Next বাটনে ক্লিক করুন।

০৬. পাসওয়ার্ড সেট করুন।

টুইটার একাউন্ট ব্যবহার করার নিয়ম
x একাউন্ট ব্যবহার করার নিয়ম

এরপর আপনার নতুন অ্যাকাউন্টটির জন্য একটি ৮ সংখ্যার শক্তিশালী পাসওয়ার্ড লিখে Next বাটনে ক্লিক করুন।

০৭. প্রফাইলে ছবি যুক্ত করুন।

টুইটার একাউন্ট ব্যবহার করার নিয়ম

পরবর্তী পেইজে আপনার এক্স প্রফাইলের জন্য একটি ছবি যুক্ত করে Next বাটনে ক্লিক করুন।

০৮. ইউজার নেইম সেট করুন।

এখন আপনার প্রফাইলের জন্য একটি ইউনিক ইউজার নেইম তৈরি করে Next বাটনে ক্লিক করুন। অথবা Skip করে দিন।

০৯. আগ্রহ প্রকাশ করুন।

পরবর্তী পেইজে আপনি আপনার পছন্দের কয়েকটি বিষয় বা ক্যাটেগরি নির্বাচন করে Next করে দিন।

আপনার কাজ শেষ। অতুটুকু করলেই একটি এক্স অ্যাকাউন্ট তৈরি হয়ে যায়। আপনার এক্স অ্যাকাউন্ট তৈরি হয়ে গেলে কিছু এক্স অ্যাকাউন্ট ফলো করে নিন। ধন্যবাদ।

100% LikesVS
0% Dislikes

Robin Miah

আমি রবিন মিয়া, একজন সৌদি আরব প্রবাসী। আমার বাসা টাংগাইলের কালিহাতীতে। প্রযুক্তি বিষয়ক বিভিন্ন তথ্য নিজে জানার জন্য এবং আপনাদের জানানোর উদ্দেশ্যে এই ওয়েবসাইটটি তৈরি করেছি।
Back to top button

Discover more from প্রযুক্তি প্রিয়

Subscribe now to keep reading and get access to the full archive.

Continue reading